সব

এনহেদুয়ান্না পৃথিবীর প্রথম কবি

চন্দ্রদেবী সুয়েনের মন্দিরে ধ্যানমগ্ন এক যুবতী, পদ্মাসনে উপবিষ্ট। দুই হাতের করতল সংযুক্ত, ঈষৎ উত্তোলিত। বুকের দুপাশে নগ্ন স্তনের ওপর দুগাছি কালো চুল। সুডৌল বাহুযুগল, উন্মুক্ত পিঠ এবং ঊরুসন্ধির সঙ্গমস্থলে স্ফীত নিতম্ব,...
১৬ ঘন্টা ৩১ মিনিট আগে মন্ত্যব্য

কবিতা রক্তি নদীর একলা মাঝি

ছোট ছোট দুঃখগুলো ইঁদুর ছিল এখন তারা বাঘ হয়েছে, খাবলে ধরে এখন তারা রক্তপায়ী...
১৬ ঘন্টা ৪৩ মিনিট আগে

দেশহীন মানুষের গান

বর্ষার দিন আর সইছে না পাখিদের নোটবুকে যে নাম ভুলে গেছি সেই প্রেমিকার দেহ বীথিকা-আঁখিমা নাম মনে বইছে না হৃদয়ের ক্ষতে বিগত দিনের সন্দেহ মরিচঝাঁপি ক্যাম্প আর ঘুমধুম বিশ্বের এ যেন অভিশপ্ত যোনিদেহ দেশভাগ আর দেশহীন মানুষের গান কি রোহিঙ্গা কি-বা...
১৬ ঘন্টা ৪৪ মিনিট আগে

মিহি ব্যথা

আঁধার রাতে ঝিলিক দেখে ভাবি আলোর রেখা ঝলসে ওঠে পথে খানিক পরে প্রগাঢ় ভালোবেসে...
১৬ ঘন্টা ৪৫ মিনিট আগে

বুকশেলফ

আমাদের ঘরে কোনো বইয়ের তাক ছিল না। বই ছিল অনেক। আমি বাবাকেও বই ভাবতাম, মাকে ভাবতাম আলমারি। বাবাকে পড়ে ঘুমানোর আগে মায়ের কাছে রেখে আসতাম। মা বইটিকে খুব আড়ালে চুমু দিত। আমি একদিন গোপনে তা দেখে আমার ছোট বোনকে বলি মায়ের এসব গোপন প্রেমের কথা। ছোট বোন...
১৬ ঘন্টা ৪৯ মিনিট আগে

আমরা কেউই কাউকে চিনি না

আমার কাজিন সংখ্যাটা কত? চারজন আছে মোটে সকলের বাড়ি সকলেই যাই যখনই সময় জোটে।...
১৬ ঘন্টা ৫৮ মিনিট আগে

শিল্পী বাহাদুর

এই অবেলায় বড়দা খাবেন জর্দা দিয়ে পান— পানমুখে তাঁর গানটা জমে শান্তি অফুরান। পানটা খেয়ে গানটা ধরেন প্রাণটা জুড়ায় বেশ— শেষ হলে গান তারপরেতেও চলতে থাকে রেশ। শ্রোতা বলেন—শাবাশ শাবাশ সবাই দারুণ খোশ— তাই পেয়ে যান বড়দা...
১০ নভেম্বর ২০১৭

খোকা আর মশা

বলল এসে দুষ্টু মশা এই এনেছি মিষ্টি শসা তুই যে আমার বন্ধু, খোকা মশারিতে একটু ঢোকা।  মুচকি হেসে বলল খোকা, ‘বলিস কী রে পিচ্চি পোকা! তুই তো হলি রক্তলোভী, হুল ফুটিয়ে মোটকু হবি আমি কি আর তেমনি বোকা খাব যে তোর মিথ্যে ধোঁকা!’
১০ নভেম্বর ২০১৭

মামাবিভ্রাট

চাঁদকে যখন মামা ডেকে পড়ি আমি ছড়া বাবার কথা শুনে আমার দুচোখ ছানাবড়া! চাঁদমামাকে মামা ডেকে বাবাও খুশি ভারি আমি তখন বোকা হয়ে শুনি কথা তাঁরই। আমার যদি মামা সে হয় বাবার শ্যালক হবে সম্পর্কের হিসাবনিকাশ বদলে গেল কবে? মাথা তবে নষ্ট নাকি? পাই...
১০ নভেম্বর ২০১৭

দেশ নাই নদী নাই

বন্দুকের ঘায়ে শিশুর মগজের মতো ছিটকে বেরিয়ে এসেছি। পেছনে গুলি, আগুন, মৃত্যু,...
২৭ অক্টোবর ২০১৭

কবিতা সহজ কথন

মুহ্যমান ইস্টিশন, রেলগাড়ি এমনকি রেলের টিকিট বেহায়া কামরাগুলো চোখ মুছতে মুছতে ফিরে এল মিস সেনের নাটোর থেকে। ফিরে আসাদের কাছে আমি কিছু একটা জানার আগে তাদের ভেতর থেকে একজন ইস্টিশনের টিকিটদের প্ল্যাটফর্মে ডেকে এনে বললেন, যদি জীবনানন্দ...
২৭ অক্টোবর ২০১৭

ক্যান্ডেল ইন দ্য উইন্ড

বাতি নেভানোর আগে চারপাশে বাতাসের ক্রুদ্ধ নৃত্য চলে আর ভয়ে ভয়ে শিখাটি জ্বলে, কাঁপা কাঁপা। আমরা খুব ভয়ে ভয়ে দেখছি আমাদের শিখাটি কাঁপছে,...
২৭ অক্টোবর ২০১৭

বৃষ্টিব্যাখ্যা

বৃষ্টি এক ঘুমজাগানীয়া সংগীত উচ্চমার্গীয় সুখ ও সন্ত্রাস— কোমলগান্ধারে আলাপ বিস্তার তুলে সন্ত্রস্ত শরীরের আগুন। বৃষ্টিকে সংসারী হতে নেই, বৃষ্টি এক স্পর্শকাতরতাও; ধর্ম ও রাজনীতির যেখানে চূড়ান্ত বিরোধিতায় থেকে যায়। বৃষ্টি শরীরে নামার...
২৭ অক্টোবর ২০১৭

উল্টাপাল্টা

সূর্য অনেক গরম তাই বলে কি সূর্যের মাটি হবে অনেক নরম? চাঁদের অনেক আলো এত...
২০ অক্টোবর ২০১৭

শিহাব সরকার

মর্গের শীত থেকে নার্সারি কত দূর—হাঁটাপথে আসা যায়,হানাবাড়ির গুপ্ত বৈঠক থেকেছুটে আসি প্রতিদিন,অশরীরী যমদূত পিছু ছাড়ে না নদীতীরে ঘাস নেই, ব্যালকনি ফাঁকাদড়িতে ঝুলছে সাদা শাড়ি, শূন্য খাঁচাকী রকম দুঃসময়। পুষ্পকথা অর্থহীন নার্সারি তার মনভোলানি...
০৬ অক্টোবর ২০১৭

হাঙর

আকাশ তো আশ্বিনেই ঘোলা করে ফেললেন দাদাআষাঢ়ের এখনো কত বাকিফুঁ-টু দিয়ে একটু সাফ-সুতরোর ব্যবস্থা করুনদুপাটি দাঁতের ফাঁকগুলোর হদিস করিজলে টান লেগেছেকচুরিপানা সরিয়ে দেখি মাটিতে শালুক মেলে কি না! চোখের সামনে থেকে যত সরে পথতত বাঁকা ঘাড়আর সেই ঘাড়ে...
০৬ অক্টোবর ২০১৭ মন্ত্যব্য

গরিবের বাচ্চাদের গান

আয় রে আয়, ফুল কুড়াই—নিন্দাফুল জিন্দাফুল—কুড়াই চলপাত আঁচল ওড়াই ধূল সর্বনাশ চতুর্পাশ গ্যান্দাফুল মাকড় মল আয় নামি আয়না মিতার পারায় উজল জল স্নান করি,মরবি না? তোর বীণা বাজবে না রাগ বেহাগ আ মলো, কিন্নরি? করবি কী—দশরূপী মুখ মেলে ক্ষীর...
০৬ অক্টোবর ২০১৭

মাছেদের গ্রাম

বর্ষার নতুন জল ঢুকে যাচ্ছে আমাদের পুরোনো পুকুরে।তুমি তো মাছের স্বভাব জানো। সীমাবদ্ধ জলাধার ছেড়েউজান বেয়ে ওরা চলে যায় শ্রীমতী খালে;কেউ কেউ চানখালি খাল হয়ে কর্ণফুলীতে পুকুরের পাড় বেয়ে উজানে যেতে যেতে কত মাছ লাফিয়ে উঠছে।মাছ ধরতে আমি নিয়েছি ডুলো আর...
০৬ অক্টোবর ২০১৭

নরক

স্বপ্নের পাতাল অব্দি তুমি যদি ঘুরে এসে থাকো মনে করো শুরু হলো জেব্রাঋতু, এমন নরক কোথা পাবে আর, সখা, শব যত ঢাকা আছে পদ্মে। একটি সমুদ্র-চিল উড়ে উড়ে অন্তর্ধান করে একটি সেগুন পাতা খসে পড়ে তোমার মাথায়; লোকে জানে তুমি জড়বুদ্ধি বালকের মতো সুখী,...
০৬ অক্টোবর ২০১৭

কবিতা লেখার আগে

কবিতা লেখার আগে ছুটি চাই,অথচ লেখার পর চাই না তোমার চেয়েআরও উঁচু মেঘের ওপরে উঠেঅজানা কৌশলে শুধু ভেসে যাক ভিন্নতর মেঘ। রাত্রি বারোটার আগে ছন্দশিষ্য ডেকে নিয়ে যায়,গর্তে চেপে ধরে মাথা, ফুসফুসভরে ওঠে বিষণ্ন কাদায়,ওষ্ঠাগত কবিতার ছালবাকলের নিচেপ্রতিদিন...
০৬ অক্টোবর ২০১৭

নামের ভুলে

কুয়াকাটা গিয়ে দেখি নেই কোনো কুয়া; কাটাকাটি ছিল না তো, খবরটা ভুয়া।   বান্দরবানে কোনো ছিল না বাঁদর; মেঘেরা পাহাড়ে নেমে বিছায় চাদর।   রাজাহীন রাজশাহী, খুঁজো না প্রাসাদ; হাসি নেই কারও মুখে, বদনে বিষাদ।   ভয় ছিল পাবনায় কিছু...
০৬ অক্টোবর ২০১৭
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info